বাল্য বিয়েতে রাজি না হওয়ায় কালিহাতীতে কন্যার হাত ভেঙ্গে দিয়েছে মা

আপডেট : July, 4, 2017, 9:51 am

শুভ্র মজুমদার, কালিহাতী(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বাল্য বিয়ে বন্ধ ও প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেয়ার মুচলেকা দিয়েও ওই রাতেই কন্যাকে বিয়ের জন্য চাপ দেন মা। মেয়ে বিয়েতে রাজি হওয়ায় মা দা’র উল্টো পিঠ দিয়ে পিটিয়ে মেয়ের হাত ভেঙ্গে দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার উপজেলার এলেঙ্গা পৌর এলাকার মহেশপুর গ্রামে।
জানাযায়,এলেঙ্গা জিতেন্দ্র বালা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী মোছাঃ বিথী আক্তার মহেশপুর গ্রামের বেল্লাল হোসেনের মেয়ে। তার ঘাটাইল উপজেলার খায়েরপাড়া গ্রামের এক বাস চালকের সাথে বিয়ে ঠিক হয়। খবর পেয়ে সোমবার রাতেই কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু নাসার উদ্দিন ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বাল্য বিয়ে বন্ধ করেন এবং প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেয়ার জন্য মুচলেকা নেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু নাসার উদ্দিন ওই বাড়ী থেকে চলে আসার সাথে সাথে মা মেয়েকে বিয়ের জন্য আবার চাপ দিতে থাকে এবং মেয়েটি বিয়েতে রাজি না হওয়ায় মা দা’র উল্টো পিঠ দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে মেয়েটির হাত ভেঙ্গে দিয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু নাসার উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেয়েটির চিকিৎসা ও লেখাপড়ার সকল খরচ উপজেলা প্রশাসন থেকে বহন করা হবে। আর এ ঘটনার জন্য মেয়ের মায়ের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments

103331
Total Users : 3331